ক্যাম্পাসে নিরাপত্তার দাবিতে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাস এলাকায় নিরাপত্তার দাবিতে ক্লাস বন্ধ রেখে প্রিন্সিপালের কার্যলয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচীর ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল মঙ্গলবার রাতে কলেজের এক ছাত্রীর ব্যাগ ধরে টানাটানি করার প্রতিবাদে এ কর্মসূচী ঘোষনা করেছেন তারা।

কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই কলেজ ক্যাম্পাসটি অরক্ষিত। খুব সহজেই বহিরাগতরা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে সহপাঠীদের সাথে খাবার আচরণ করে যাচ্ছে। বিশেষ করে ক্যাম্পাসের ছাত্র নিবাসের সড়কটি দিয়ে সন্ধ্যার পর কোন ছাত্রী বের হতে পারছেন না।

সড়কটিতে বাতি দেয়া হলেও তা রহস্যজনকভাবে অফ কিংবা ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে। তাই অন্ধকারে মোটরসাইকেল কিংবা অন্য কোন যানবাহনে বহিরাগতরা ক্যম্পাসে প্রবেশ করে ছাত্রদের সাথে খারাপ আচারণ করছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল রাতে এক ছাত্রী হলের দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় মাহিন্দ্রে থাকা বখাটেরা ওই ছাত্রীর সঙ্গে থাকা ব্যাগ ধরে টান দেয়। এক পর্যায়ে ছাত্রীর হাত ধরে টানাটানি করে। পরবর্তিতে ছাত্রীটি চিৎকার দিলে ওই মাহিন্দ্রর পিছনে থাকা মোটর সাইকেলে দুই বহিরাগতসহ সকলে পালিয়ে যায়। তাই এ ঘটনা প্রতিবাদে রাতেই শিক্ষার্থীরা মশাল জ্বালিয়া ক্যম্পাস জুড়ে বিক্ষোভ করে।

শিক্ষার্থীদের দাবি, ক্যাম্পাসে সিসি ক্যমেরা স্থাপন, ঘটনাস্থলে লোহার গেইট স্থাপন, কলেজের প্রতিটি ফটকে পকেট গেইট স্থাপন করা এবং নিরাপত্তা বাহিনী নিযুক্ত করা।
উক্ত দাবির প্রেক্ষিতে বুধবার ক্লাস বন্ধ রেখে প্রিন্সিপালের কার্যলয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচীর ঘোষণা দিয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

এ ব্যপারে কলেজ প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা: ভাস্কর সাহা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই শিক্ষার্থীরা আমাদের কাছে অভিযোগ করছে। আমারা বিষয়টি পুলিশের নিকট অবহিত করেছি। কিন্তু কোন প্রতিকার পাচ্ছি না। তাই এ বিষয়ে স্থায়ী সমাধানের জন্য শিক্ষকদের সাথে বৈঠক করে খুব শিঘ্রই সমাধান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *