দাওরায়ে হাদিসের ২য় কেন্দ্রীয় পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ

সম্মিলিত কওমি শিক্ষা বোর্ড আল হাইআতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের অধীনে অনুষ্ঠিত দাওরায়ে হাদিসের ২য় কেন্দ্রীয় পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এতে পাশের হার ৭৩.৩৪।

বৃহস্পতিবার (৫ জুলাই) সকালে প্রতিষ্ঠানটির কেন্দ্রীয় কার্যালয় মতিঝিলে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এতে বোর্ডের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সকাল ১০.৩০ মিনিটে হাইআতুল উলয়ার পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাওলানা ইসমাঈল বোর্ডের কো চেয়ারম্যান ও বেফাকের সিনিয়র সহসভাপতি আল্লামা আশরাফ আলীর হাতে ফলাফলে কাগজ তুলে দেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের সহসভাপতি মাওলানা সাজিদুর রহমান, মুফতি ফয়জুল্লাহ, মাওলানা বাহাউদ্দীন জাকারিয়া, মহাসচিব মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, সহকারী মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, বেফাকুল মাদারিসিদ্দীনিয়্যা বাংলাদেশের মহাসচিব মুফতি মুহাম্মদ আলী, হাইআতুল উলয়ার দফতর সম্পাদক মাওলনা ওসিউর রহমান প্রমুখ।
এ বছর দাওরায়ে হাদিসের পরীক্ষায় সম্মিলিত ৬ বোর্ড থেকে অংশ নিয়েছিলেন ২০ হাজার ৭৪৯ জন শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ছাত্র ১৪,৭৪৭; ছাত্রী ৬,০০২।

পুরুষদের মধ্যে মুমতাজ মার্ক পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৭১৫ জন শিক্ষার্থী। জায়্যিদ জিদ্দান ৩৫০৭ জন, জায়্যিদ ৫৫৮৬, মকবুল৪৭২৬। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়নি ৪৮৮৬ জন শিক্ষার্থী। এছাড়া অনুপস্থিত ছিল ৯৩১ জন, স্থগিত ৩৮৩ জনের পরীক্ষা।

পুরুষদের মধ্যে মেধা তালিকায় ১ম স্থানে রয়েছেন বগুড়ার জামিল মাদরাসার শিক্ষার্থী মুহাম্মদ শামসুল হক ও রাজধানীর জামিয়া ইমদাদুল উলুম ফরিদাবাদ মাদরাসার খলিল আহমদ নাদিম।

২য় স্থান অধিকার করেছেন যৌথভবে ২ জন, কিশোরগঞ্জ জেলার জামিয়া নুরানিয়া তারাপাশা মাদরাসার নাসিরুদ্দীন ও জামিয়া ইসলামিয়া পটিয়া চট্টগ্রামের মুহাম্মদ খুবাইব রাজি।

যৌথভাবে ৩য় স্থান অধিকার করেছন জামিয়াতুল উলূমুল ইসলাম মোহাম্মদপুর ঢাকার জিহাদুল ইসলামও জামিয়া ইসলামিয়া পটিয়ার মুহাম্মদ আয়াতুল্লাহ ।

নারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে এবছর মেধা তালিকায় ১ম স্থান অধিকার করেছেন মাহমুদিয়া মহিলা মাদরাসা ডেমরা ঢাকার মুনজিয়া ইসলাম।
২য় স্থান অধিকার করেছেন আয়েশা সিদ্দিকা দত্তপাড়া নরসিংদীর শামিমা।

যৌথভাবে ৩য় স্থান অধিকার করেছেন ৩ জন ছাত্রী। তারা হলেন, আল হুদা মহিলা মাদরাসা চট্টগ্রামের রাহমা, আয়েশা সিদ্দিকা মহিলা মাদরাসা, ঢালকা নগর ঢাকার হাফসা সুলতানাএবং একই মাদরাসার শিক্ষার্থী ফাহিমা মোসাররাত। সারাদেশে ১৭২টি ছাত্র কেন্দ্রে ও ১৫০টি ছাত্রী কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

সর্বমোট মাদরাসা সংখ্যা ১০৩৮টি; পুরুষ মাদরাসা ৫৫৪টি, মহিলা মাদরাসা ৪৮৪টি। দেশের ৬টি কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডর অধিভুক্ত দাওরায়ে হাদিস মাদরাসার ছাত্র-ছাত্রীরা এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

বোর্ডগুলো হলো, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ, বেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া গওহরডাঙ্গা বাংলাদেশ, আযাদ দ্বীনী এদারায়ে তা’লীম বাংলাদেশ, তানযীমুল মাদারিসিদ দ্বীনিয়া বাংলাদেশ, আঞ্জুমানে ইত্তেহাদুল মাদারিস বাংলাদেশ এবং বেফাকুল মাদারিসিদ্দীনিয়্যা বাংলাদেশ সমন্বয়ে গঠিত এ বোর্ড।

উল্লেখ্য, গত ১১এপ্রিল ২০১৭ গণভবনে দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমমর্যাদা ঘোষণা করেছে সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *